মিয়ানমারে ফের সহিংসতা, নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত ৩৮

১৫ মার্চ ২০২১, ১২:১৩
ইত্তেফাক টাইমস ডেস্ক

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করা জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভের সময় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে একদিনে আরও অন্তত ৩৮ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে দেশটির প্রধান শহর ইয়াঙ্গুনের হ্লায়াইং থারইয়া এলাকায় বিক্ষোভে সেনা-পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন ২১ জন বিক্ষোভকারী।

গতকাল রোববার (১৪ মার্চ) দেশটির বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংঘর্ষে এ প্রাণহানি ঘটেছে। এর আগে ৩ মার্চও ৩৮ জন প্রাণ হারায়।

বিক্ষোভকারীদের বিশ্বাস, চীন মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে সমর্থন দিচ্ছে। যদিও চীন এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। বিক্ষোভকারীদের হামলার আশঙ্কায় ইয়াংগুনে বিভিন্ন চীনা কারখানা এলাকায় সামরিক আইন জারি করা হয়েছে।

এর আগে সেনাবাহিনী ও বেসামরিক সরকারের মধ্যে নির্বাচনে জালিয়াতি নিয়ে চলমান উত্তেজনার মধ্যে ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান ঘটে। এর পরপরই এনএলডির শীর্ষ নেত্রী অং সান সু চি, দেশটির প্রেসিডেন্ট এবং মন্ত্রিসভার সদস্যসহ প্রভাবশালী রাজনীতিকদের আটক করে সেনাবাহিনী।

পরে সেনাবাহিনী এক ঘোষণায় জানায়, আগামী ১ বছরের জন্য মিয়ানমারের ক্ষমতায় থাকবে তারা।

গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে সরিয়ে দিয়ে সেনা অভ্যুত্থানের ঘটনায় হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ করতে রাস্তায় নেমে আসে। বড় জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা ও রাত্রিকালীন কারফিউ থাকা সত্ত্বেও তারা বিক্ষোভ দেখায়।

মিয়ানমারে চলমান আন্দোলনে এ পর্যন্ত ৯০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিকাল প্রিজনার্স। একই সময়ে ২ হাজার ১০০র বেশি মানুষকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংগঠনটি।

মন্তব্য লিখুন :